ওয়েব ডিজাইন শেখা: পর্ব ০২

ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা

সর্বশেষ আপডেট:

ওয়েব ডিজাইন হলো এইচটিএমএল (HTML), সিএসএস (CSS), জাভাস্ক্রিপ্ট, গ্রাফিক্স ডিজাইন প্রভৃতির একটি সমন্বিত রূপ। ওয়েব ডিজাইন শিখতে হলে উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে সম্যক ধারণা থাকা প্রয়োজন।

ওয়েব ডিজাইন কি:

আমরা যখন ব্রাউজারের অ্যাড্রেসবারে কোনো ওয়েবসাইটের ঠিকানা লিখে এন্টার দেই তখন উক্ত ওয়েবসাইটটি আমাদের স্ক্রিনে দৃশ্যমান হয়। একেক ধরনের ওয়েবসাইট দেখতে একেক রকম হয়। আবার একই ওয়েবসাইটের বিভিন্ন অংশে পার্থক্য পরিলক্ষিত হয়। লেখার ধরন, রং, আকার প্রভৃতি থেকে শুরু করে ছবি, ফ্রেম, লেআউট সবকিছুই পরিবর্তন করা সম্ভব। অন্যদিকে স্ক্রিনের আকার অনুযায়ী ডিজাইনকে খাপ খাওয়াতে হয়।

এক কথায়, কোনো ওয়েবসাইট স্ক্রিনে কেমন দেখাবে তা নিধারণ করে দেয়াটাই হলো ওয়েব ডিজাইন।

ওয়েব ডিজাইনের অন্তর্ভুক্ত বিষয়সমূহ:

  1. এইচটিএমএল (HTML)
  2. সিএসএস (CSS)
  3. জাভাস্ক্রিপ্ট (JavaScript)
  4. গ্রাফিক্স ডিজাইন (ফটোশপ, ইলাসট্রেটর ইত্যাদি)

এইচটিএমএল (HTML):

HTML-এর পূর্ণরূপ হলো Hypertext Markup Language. এটি একটি Markup Language যার সাহায্যে কোনো ওয়েব পেজ গঠিত হয়। HTML-এর বিভিন্ন ট্যাগ (Tag) রয়েছে যেগুলোর সাহায্যে কোনো তথ্যকে সঠিকভাবে নির্ধারণ (Define) ও উপস্থাপন করা হয়। HTML-এর বিভিন্ন ভার্সন রয়েছে। এর সর্বশেষ ভার্সন হলো HTML5.

সিএসএস (CSS):

সিএসএস (CSS)-এর পূর্ণরূপ হলো Cascading Style Sheet. ওয়েব ডিজাইনের প্রাথমিক ও বিস্তৃত অংশ জুড়ে রয়েছে সিএসএস-এর ভূমিকা। এইচটিএমএল-এর সাহায্যে আমরা ওয়েবপেজের যে গঠনটি দাঁড় করাই, সিএসএস-এর মাধ্যমে তা স্ক্রিনে আকর্ষণীয়ভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারি। এছাড়া সাধারণ কিছু অ্যানিমেশনও সিএসএস-এর সাহায্যে করা যায়।

জাভাস্ক্রিপ্ট (JavaScript):

কোনো ওযেবপেজকে জীবন্ত ও ক্রিয়াশীল (interactive) করে তোলার জন্য জাভাস্ক্রিপ্ট প্রয়োজন হয়। জাভাস্ট্রিপ্ট মূলত একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। এর সাহায্যে অনেক ধরনের কাজ করা যায়। তবে ডিজাইন সংক্রান্ত কয়েকটি কাজ হলো কাস্টম স্ক্রলবার, ছবির স্লাইডার, টুলটিপ, অ্যকর্ডিয়ন (Accordion), অ্যালার্ট বক্স, মডাল বক্স ইত্যাদি।

গ্রাফিক্স ডিজাইন:

শুধু কোডের মাধ্যমে ওয়েবসাইট ডিজাইন সম্পূর্ণ হয় না। কিছু ছবি ও আইকন ব্যবহার করে ওয়েবসাইটকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলা যায়। ছবিগুলোকে প্রয়োজন মতো তৈরি করার জন্য ফটোশপ, ইলাসট্রেটর ইত্যাদি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহৃত হয়।

অন্যান্য বিষয়:

উপরিউক্ত বিষয়গুলো ওয়েব ডিজাইনের সাথে সরাসরি সম্পর্কিত। এছাড়া আরো অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলো দ্রুত ও দক্ষতার সাথে ওয়েব ডিজাইনের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। যেমন:-

১। সিএসএস প্রিপ্রসেসর (CSS preprocessor): সিএসএস প্রিপ্রসেসরের সাহায্যে দ্রুত সিএসএস কোডিং করা যায়। এছাড়া দ্রুত ও সহজে থিম পরিবর্তনের জন্য এটি ব্যবহার করা যায়। দুটি জনপ্রিয় সিএসএস প্রিপ্রসেসর হলো Sass ও Less.

শেয়ার, কমেন্ট, মেইল বা প্রিন্ট করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।